২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং, ৫ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ


আগামী মাসেই প্রাথমিকের বাচ্চাদের দুপুরে খাবার দেয়া হবে

ডেস্ক রিপোর্ট>> আগামী এক মাসের মধ্যে দেশের সকল স্কুলে ‘মিডডে মিল’ (দুপুরের খাবার) চালু করা হবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান ফিজার।

বৃহস্পতিবার প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের (ডিপিই) আয়োজনে রাজধানীর ন্যাশনাল বাংলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আয়োজিত মানসম্মত প্রাথমিক শিক্ষা নিশ্চিতকরণে যোগাযোগ ও সামাজিক উদ্বুদ্ধকরণ বিষয়ক কর্মশালায় মন্ত্রী এ ঘোষণা দিয়েছেন। কর্মশালায় প্রাথমিক স্তরের শিক্ষক, কর্মকর্তা, স্কুল ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্যসহ ২ হাজার ৫০ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী উপস্থিত ছিলেন।

মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, দলমত নির্বিশেষে সবাইকে শিক্ষার বিষয়ে একমত হতে হবে। এ বিষয়ে কোনো রাজনীতি নেই। ব্যক্তিগত পছন্দ বা অপছন্দ থাকবে না। আমরা সবাই মিলে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো সুন্দর করে তুলতে হবে। যাতে শিক্ষার্থীরা আকৃষ্ট হয়ে বিদ্যালয়মুখী হয়। শিক্ষকরা দরদ দিয়ে পড়ালেখা করালে মানসম্মত শিক্ষা দেয়া সম্ভব হবে।

দুপুরে খাবার দেয়ার বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, এই উদ্যোগে সন্তানের মায়েদের উদ্বুদ্ধ করতে হবে। যেন তারা প্রতিদিন তাদের সন্তানদের সঙ্গে খাবার পাঠিয়ে দেন। যদি সরকার পরিবর্তন হয়, তবুও এই উদ্যোগ পরিবর্তন হবে না। সরকার বই দিচ্ছে, উপবৃত্তি দিচ্ছে। মায়েরা শুধু খাবার দেয়ার অনুরোধ জানান। আগামী মাস থেকে সারাদেশে এক কার্যক্রম চালু করা হবে।

কর্মশালায় মুক্ত আলোচনায় ফরিদপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা পিয়ারা আক্তার বলেন, শিক্ষার্থীদের দুপুরের খাবার দিতে না পারায় তাদের ফুল টাইম স্কুলে ধরে রাখা সম্ভব হচ্ছে না। তাই মায়েদের উদ্বুদ্ধ করে বাচ্চাদের জন্য ‘মিডডে মিল’ সঙ্গে পাঠাতে সকলকে কাজ করতে হবে।

রামনা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সহ সভাপতি শামিমারা শিমুল বলেন, তার স্কুলে ১০টি শিক্ষকের পদ থাকলেও সেখানে ছয়জন শিক্ষক রয়েছেন। তাই প্রতিদিন একজন শিক্ষককে ৮ থেকে ১০টি করে ক্লাস করাতে হচ্ছে। তাই শিক্ষকরা মনোযোগ দিয়ে পড়াতে পারছেন না। দ্রুত শিক্ষক নিয়োগের সুপারিশ জানান।

কর্মশালায় আরও বক্তব্য দেন অতিরিক্ত সচিব এ এফ এম মঞ্জুর কাদির, মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক আবু হেনা মোস্তাফা কামাল, অতিরিক্ত সচিব মো. রমজান আলী।