২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং, ৬ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ


চবিতে শিক্ষার্থীকে অপহরণ, ছাত্রলীগের লাখ টাকা দাবি

ডেস্ক রিপোর্ট:: চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) ছাত্রলীগের একাংশের বিরুদ্ধে শিবির সন্দেহে মামদুদুর রহমান নামে এক শিক্ষার্থীকে অপহরণ করে চাঁদাবাজির অভিযোগ উঠেছে।

অপহরণের শিকার মামদুদুর ভাষা বিজ্ঞান বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী। ইতোমধ্যে ওই শিক্ষার্থীর পরিবারের কাছে এক লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেছে অপহরণকারী ছাত্রলীগ কর্মীরা। এছাড়া চাঁদা না পেলে শিবির কর্মী বলে থানায় সোপর্দ করা হবে বলেও হুমকি দেয়া হয়।

জানা গেছে, অপহরণকারীরা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক আবু সাঈদের অনুসারী হিসেবে ক্যাম্পাসে পরিচিত।

রোববার বিকেল ৩টার দিকে ওই শিক্ষার্থীকে কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির সামনে থেকে অপহরণ করে ৬ জনের একটি দল। যদিও এখন পর্যন্ত তার কোনো হদিস পাওয়া যায়নি।

অপহরণের শিকার বিশ্ববিদ্যালয়ের ওই শিক্ষার্থীকে উদ্ধারে ইতোমধ্যে প্রক্টরিয়াল বডি ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কাজ শুরু করেছেন বলে জাগো নিউজকে জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর লিটন মিত্র।

এদিকে অপহরণের এক ঘণ্টা পর পরিবারের কাছে এক লাখ টাকা দাবি করে বলে জাগো নিউজকে জানান, মামদুদুরের বড় ভাই মাহমুদুর রহমান। তিনি বলেন, আমার ছোট ভাইয়ের মোবাইল থেকে কল করে অপহরণকারীরা চাঁদা দাবি করে এবং একটি এজেন্ট নাম্বারে (০১৭৮১-৩২৭১৩১) পাঁচ হাজার টাকা পাঠাতে বলে। বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে পাঁচ হাজার টাকা পাঠানোর পর থেকে আমার ভাইয়ের নাম্বারটি বন্ধ রয়েছে।

তবে এই অপহরণ ও চাঁদাবাজির বিষয়টি অস্বীকার করে চবি ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক আবু সাঈদ জাগো নিউজকে বলেন, আমার অনুসারী কেউ এর সঙ্গে জড়িত নয়। এসময় তিনি জড়িতদের বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ও সাংগঠনিকভাবে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ারও দাবি জানান।