২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং, ৬ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ


তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের পর পুকুরে ফেলে হত্যা করল কিশোর

সাতক্ষীরার আশাশুনি উপজেলার গাবতলা গ্রামে তৃতীয় শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যার ঘটনা ঘটেছে। রোববার রাতে এ ঘটনা ঘটে। হত্যার পর প্রথমে মরদেহটি পুকুরে ও পরে বাথরুমে রাখা হয়।

এ ঘটনায় জয়দেব সরকার নামে এক কিশোরকে আটক করেছে পুলিশ। জয়দেব গাবতলা গ্রামের নির্মল সরকারের ছেলে ও বুধহাটা বিবিএম কলেজিয়েট স্কুলের একাদশ শ্রেণির ছাত্র।

আশাশুনি থানার ওসি বিপ্লব কুমার নাথ জানান, জয়দেবের বোন ওই ছাত্রীকে প্রাইভেট পড়াতো। রোববার মেয়েটি প্রাইভেট পড়তে গেলে বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে তার উপর নির্যাতন চালায় জয়দেব। এক পর্যায়ে মেয়েটি জ্ঞান হারিয়ে ফেললে মারা গেছে ভেবে পুকুরে ফেলে দেয়। পরে মেয়েটির পরিবার ও গ্রামবাসী খোঁজাখুঁজির এক পর্যায়ে পুকুরে জাল ফেলার সিদ্ধান্ত নেয়। এ সময় কৌশলে জয়দেব পুকুর থেকে মরদেহ তুলে নিজের বাথরুমে রাখে।

তিনি আরও জানান, ঘটনা জেনে রাত সাড়ে ১১টার দিকে মরদেহটি উদ্ধার করে পুলিশ। একইসঙ্গে জয়দেব সরকারকে আটক করা হয়। সে ধর্ষণ ও হত্যাকাণ্ডের কথা স্বীকার করেছে। মরদেহটি সোমবার সকালে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে।