১৯শে এপ্রিল, ২০২১ ইং, ৬ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ


থাপ্পড় মেরে ছাত্রের কানের পর্দা ফাটিয়ে দিলেন শিক্ষক (ভিডিও)

ডেস্ক রিপোর্টঃঃ নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় একদিন স্কুলে না আসা ও চুল বড় রাখার অপরাধে ৯ম শ্রেণির ছাত্র আরিফুল ইসলামকে (১৪) থাপ্পড় দিয়ে কানের পর্দা ফাটিয়ে দিয়েছেন স্কুলশিক্ষক বাইজিদ হাসান।

শিক্ষকের এমন ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা চলছে। তবে ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে স্কুলের ম্যানেজিং কমিটি ও এবং অভিযুক্ত শিক্ষক বিভিন্ন মহলে দৌড়ঝাঁপ করছেন।

গত ৮ আগস্ট বৃহস্পতিবার সকালে ফতুল্লার কুতুবপুরস্থ আদর্শনগর ওয়াসকরনী উচ্চ বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে। আহত স্কুলছাত্র চিকিৎসা শেষে মঙ্গলবার দুপুরে বাসায় আসার পর ঘটনাটি ছড়িয়ে পড়ে। নির্যাতিত স্কুলছাত্র আরিফুল ইসলাম ফতুল্লার আদর্শনগর এলাকার ওয়াসকরনী এলাকার চাঁন মিয়ার ছেলে।

আরিফুল ইসলাম জানায়, গত ৮ আগস্ট সকালে প্রতিদিনের মতো বিদ্যালয়ে যাওয়ার পর ইংরেজি শিক্ষক বাইজিদ হাসান একদিন কেন স্কুলে হাজির হইনি এবং মাথার চুল বড় কেন এ কথা বলে মারধর শুরু করেন।

একপর্যায়ে শিক্ষক বাইজিদ উত্তেজিত হয়ে থাপ্পড় দিয়ে আমার কানের পর্দা ফাটিয়ে দেন। শিক্ষকের থাপ্পড়ে কান দিয়ে রক্ত বের হলে চিৎকার দিয়ে স্কুল থেকে বের হয়ে যাই। পরে আমাকে দ্রুত ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসা শেষে মঙ্গলবার বাসায় ফিরে আসি।

স্কুলছাত্র আরিফুল ইসলামের মা জানান, শিক্ষকের থাপ্পড়ে আরিফুল ইসলামের কানের পর্দা ফেটে রক্ত বের হয়। গুরুতর আহত হয় সে। আরিফুলকে মারধধের পর স্কুলশিক্ষক বাইজিদ কোনো খবর নেননি। বিষয়টি সমাধানের জন্য বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির লোক আশ্বাস দিয়েছেন। একজন শিক্ষক এভাবে ছাত্রকে মারতে পারে তা কখনো দেখিনি।

অভিযুক্ত শিক্ষক বাইজিদ হাসান বলেন, আরিফুলকে থাপ্পড় দেয়ার ফলে এমন সমস্যা হবে বুঝতে পারিনি। এ ঘটনার জন্য আমি দুঃখ প্রকাশ করছি। ওই ছাত্রের পরিবারের সঙ্গে বসে বিষয়টি মীমাংসা করা হয়েছে।